অর্থই অনর্থের মূল ভাব সম্প্রসারণ Class 6, 7, 8

অর্থই অনর্থের মূল

অর্থ একটি প্রয়োজনীয় জিনিস এবং এই অর্থই অনেক অ-সৃষ্টির জন্ম দেয়। পৃথিবীতে যত মজার ঘটনা ঘটেছে তার মূলে রয়েছে অর্থ। টাকার জন্য ভাই, স্বামী স্ত্রীকে খুন করতে দ্বিধা করে না ভাই।

সম্প্রসারিত ভাব

মানুষের জীবনে অর্থের প্রয়োজনীয়তা অনস্বীকার্য। কারণ টাকা ছাড়া আপনি সঠিকভাবে বেঁচে থাকার কথা ভাবতেও পারবেন না। মৌলিক চাহিদা পূরণ ছাড়া মানুষের বেঁচে থাকা সম্ভব নয়। এবং প্রতিটি মৌলিক প্রয়োজন অর্থের প্রয়োজন। আমরা যদি আজ বিশ্বের দিকে তাকাই তাহলে দেখা যাবে যে দেশগুলো অর্থনৈতিকভাবে সমৃদ্ধ তারাই বিশ্বের নেতৃত্ব দিচ্ছে। অন্যদিকে অর্থনৈতিকভাবে দরিদ্র দেশগুলোকে সমৃদ্ধ দেশগুলোর নির্দেশনা অনুসরণ করতে হবে। তার প্রতিফলন শুধু রাজ্যেই নয়, সর্বত্রই দৃশ্যমান।

প্রকৃতপক্ষে মানুষের দৈনন্দিন জীবনের সমস্ত কাজ অর্থ দ্বারা হয়। আপাতদৃষ্টিতে টাকাই মানুষের সুখ-স্বাচ্ছন্দ্যের নিয়ন্ত্রক, কিন্তু সেই টাকাই অনেক সময় অসুখের কারণ হয়ে দাঁড়ায়। টাকাকে কেন্দ্র করে ভাই-বোন, পিতা-পুত্র ও স্বামী-স্ত্রীর মধ্যে বিবাদ, বিবাদ, বিবাদ লেগেই থাকে। প্রতিদিন খবরের কাগজের পাতা খুললে দেখবেন অনেক মর্মান্তিক ঘটনা, যার বেশিরভাগই অর্থের কারণে। অর্থের লোভে মানুষ চুরি, ডাকাতি, চাঁদাবাজি এমনকি খুনের মতো জঘন্য অপরাধে লিপ্ত হয়।

সরকারি কর্মকর্তা-কর্মচারীরা তাদের নীতি-নৈতিকতা বিসর্জন দিয়ে শুধু অর্থের জন্য দেশকে ধ্বংস করে দিচ্ছে। অর্থের প্রতি লালসা মানুষের নৈতিক অবক্ষয়ের দিকে নিয়ে যায়। এই অর্থই পৃথিবীর সকল দ্বন্দ্ব, অশান্তি ও সংঘাতের মূল কারণ। সম্পদের কারণে রাজ্যের মধ্যে যুদ্ধের উন্মাদনা, মালিক-শ্রমিকদের মধ্যে বিরোধ এবং ভাইদের মধ্যে শত্রুতা। টাকার জন্য মানুষ খুন করে। ১৫০০ বছর আগে কারবালার মরুভূমিতে ইয়াজিদ সেনাপতি সিমারের হাতে যে হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটেছিল তার মূলেও অর্থ ছিল। তাই অর্থই সংসারে অশান্তির মূল।

মন্তব্য

যদিও জীবনযাপনের জন্য অর্থের প্রয়োজন হয়, তবে এটি কখনই নৈতিকতা এবং বিবেককে ত্যাগ করা উচিত নয়। তাই অর্থের পেছনে না ছুটে নৈতিকতা ও মানবতা অর্জনের পথে ছুটতে হবে।

Leave a Comment